চুলের যত্ন

চুল পড়া প্রতিরোধে ঘরেই তৈরি করুন হেয়ার মাস্ক।

আমরা সাধারণত ত্বকের প্রতি কিছুটা যত্নশীল হলেও চুল নিয়ে বেশ উদাসীন থাকি। কিন্তু চুলের দিকেও যে কিছুটা নজর দিতে হবে এই বিষয়টি আমাদের মাথায় আসে যখন চুল পড়া শুরু করে আর মাথায় দেখা দেয় টাক। মাথার এই চুল পড়া প্রতিরোধ করতে বাজারে পাওয়া যায় অনেক ধরনের প্রসাধনী সামগ্রী। কিন্তু আমি আজ আপনাদের বলবো প্রাকৃতিক চুল পড়া প্রতিরোধক হেয়ার মাস্ক তৈরির পদ্ধতি।

তাহলে চলুন দেখে নেওয়া যাক এমন কিছু হেয়ার মাস্কের প্রস্তুত প্রনালী এবং ব্যবহারবিধি। প্রাকৃতিক এই হেয়ার মাস্কগুলো নিয়মিত ব্যবহারে আপনার চুলের ফলিকল হবে আরো শক্ত এবং মাথা থাকবে খুশকিমুক্ত।

১/ অলিভ অয়েল, মধু এবং দারুচিনির তৈরি চুলের মাস্ক

এই হেয়ার মাস্কটি তৈরিতে আপনার লাগবে পরিমাণমত অলিভ অয়েল, ১-২ টেবিল চামচ মধু, ১ টেবিল চামচ দারুচিনি গুড়ো। আপনার মাথার চুলে যতটুকু পরিমাণ অলিভ অয়েল লাগবে ঠিক সেই পরিমাণ অলিভ অয়েল নিন। তারপর এতে উপরের উল্লেখকৃত পরিমাণ অনুযায়ী মধু এবং দারুচিনি মিশিয়ে নিন। এবার ভালোভাবে একে ব্লেন্ড করুন। মাথার চুলে একেবারে গোড়ায় লাগিয়ে নিন। ১৫-২০ মিনিট দিয়ে রাখুন। এরপর শ্যাম্পু করে ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন। এতে করে চুলের গোড়া মজবুত হবে এবং টাক পড়ার সম্ভাবনা একেবারেই কমে যাবে।

২/ মেহেদী এবং সরিষার তেলের চুলের মাস্ক

চুল পড়া প্রতিরোধে ঘরেই তৈরি করুন হেয়ার মাস্ক।

চুল পড়া প্রতিরোধে ঘরেই তৈরি করুন হেয়ার মাস্ক।

এটি তৈরি করতে আপনার লাগবে প্রায় ১০০ গ্রাম মেহেদী পাতা এবং ২৫০ গ্রাম সরিষার তেল। একটি পাত্রে সরিষার তেলটি গরম করে নিন। এই সময়ে অপর আরেকটি পাত্রে মেহেদী পাতাগুলো ভালোভাবে সিদ্ধ করে নিন। প্রায় ৫ থেকে ৭ মিনিট ফুটানোর পর তেলটি নামিয়ে ঠাণ্ডা হতে দিন। সিদ্ধ মেহেদী পাতার রসগুলো নামিয়ে নিয়ে তেলের সাথে মিশিয়ে নিন। এরপর কিছুক্ষণ রেখে ঠাণ্ডা হয়ে গেলে মাথায় প্রয়োগ করুন। এই মাস্কটি খুশকি প্রতিরোধ করে আপনার চুলকে রাখবে আরো বেশি মোলায়েম।

৩/ জবা ফুল আর লেবুর রসের তৈরি মাস্ক

জবা ফুল আর লেবু তো আমরা সবাই চিনি কিন্তু এগুলো দিয়ে যে চুল পড়ে যাওয়া প্রতিরোধে মাস্ক তৈরি করা যায় তা কি জানতেন। এই মাস্কটি তৈরিতে আপনার লাগবে ২টি জবা ফুল এবং একটি লেবু। এক গ্লাস পরিমাণ পানি একটি পাত্রে ফুটতে দিন। এবার ফুটানো পানির মধ্যে দুটি জবাফুলের পাপড়ি ছিড়ে দিয়ে দিন। এভাবে রাখুন প্রায় ৫ থেকে ৭ মিনিট। এবার জবাফুল সিদ্ধ পানিটি নামিয়ে কিছুক্ষণ ঠাণ্ডা হতে দিন। তারপর ধীরে ধীরে মাথার যে অংশটি টাকে পরিণত হচ্ছে সেখানে প্রয়োগ করুন। কিছুক্ষন রেখে মাথা ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন।

৪/ নিমপাতার মাস্ক

নিমপাতার ভেষজগুণ বলে শেষ করার মতো নয়। নিমপাতা দিয়ে তৈরি মুখের ব্রণ প্রতিরোধের যেমন মাস্ক রয়েছে তেমনি মাথার চুল পড়ে যাওয়া রোধ করতেও মাস্ক রয়েছে নিমের। কিছু পরিমাণ পানির সাথে প্রায় ১০ থেকে ১২টি নিমপাতা দিয়ে কিছুক্ষন সিদ্ধ করুন। সিদ্ধ করা পানি কালচে রঙ ধারণ করলেই পানি নামিয়ে ঠাণ্ডা হতে দিন। এরপর নিমপাতা ছেকে নামিয়ে ফেলুন। এই পানি ঠাণ্ডা হয়ে গেলে এটি চুল ধোয়ার কাজে ব্যবহার করুন। নিয়মিত ব্যবহারে চুল পড়া কমে যাবে অনেকাংশে।

সর্বোচ্চ পঠিত

To Top
কুপা ভাজ করি ফেলা দেও :p

কুপা ভাজ করি ফেলা দেও :p

Posted by Radio Padma News on Tuesday, 4 September 2018
[X]