রান্না – ঘর

বাদামের কটকটি বানিয়ে ফেলুন আপনার সন্তান স্কুল থেকে আসার আগেই!

বাদামের কটকটি বানিয়ে ফেলুন আপনার সন্তান স্কুল থেকে আসার আগেই!

কোন যুগ থেকে বাচ্চাদের মনে রাজত্ব করে চলেছে কটকটি? কেউ বলতে পারেন? মনে আছে, স্কুল ছুটির পর একছুটে পৌঁছে যেতাম কাছের এক ছোট্ট মুদির দেকানে। মায়ের দেওয়া খুচরো পয়সায় পকেট ভর্তি করতাম কটকটি দিয়ে। সব যে একা খেতাম এমনও নয়, বন্ধু-বান্ধব তো আর কম ছিল না। সবার ভাগেই জুটত কয়েক টুকরো বাদাম কটকটি।
তাছাড়া পুরনো বই খাতা, লোহা লক্কড় বিক্রি করেও কিনতাম এই কটকটি।
আপনাদের ছোটবেলাটাতেও মনে হয় কটকটি এইভাবেই নিজের রাজত্ব বিস্তার করেছিল।
আজ আপনাদের শেখাবো কীভাবে বানাতে হয় বাদাম কটকটি। খেতে সুস্বাদু এই পদটি বানাতে একেবারেই বেশি সময় লাগবে না। তাহলে অপেক্ষা কিসের, বাচ্চারা স্কুল থেকে ফেরার আগেই বানিয়ে ফেলুন না সুস্বাদু বাদাম কটকটি।

বাদাম কটকটি বানানোর সহজ রেসিপি পরিবেশন করবেন- ৪ পিস
বানাতে সময় লাগবে- ২০ মিনিট
উপকরণ গোছাতে সময় লাগবে- ১০ মিনিট
উপকরণ: ১. চীনাবাদাম- ২ কাপ
২. গুড়- ১ কাপ
৩. ঘি- ১/২ চামচ
৪. এলাচ- ৪-৫ টা (গুঁড়ো করা)

বানানোর পদ্ধতি:
১. একটা বড় বাটি নিয়ে গরম করুন।
২. যখন দেখবেন বাটিটা ভালো রকম গরম হয়ে গেছে তখন তাতে চীনাবাদামগুলি দিয়ে ভালো করে ফ্রাই করুন। চীনাবাদামগুলি লালচে খয়েরি রঙের হয়ে গেলে আঁচ বন্ধ করে দিন।
৩. এবার ভাজা চীনাবাদামগুলিকে একটা প্লেটে নিয়ে ভালো করে গুঁড়ো করে নিন।
৪. ফ্রাই করার আগে মনে করে চীনাবাদামের খোসাটা ছাড়িয়ে নেবেন কিন্তু!
৫. এবার একটা চাটু নিয়ে গরম করুন। যখন দেখবেন চাটুটা ভাল মতন গরম হয়ে গছে, তখন তাতে গুড়টা দিয়ে দিন।
৬. চাটুতে এক চামচ ঘি দিন।
৭. গুড়টাকে তরল করতে পরিমাণ মতো জল মেশান।
৮. যখন গুড়টা গলে যাবে, তখন তাতে চীনাবাদমগুলো দিয়ে ভালো করে নাড়তে থাকুন। কম করে ১০-১৫ মিনিট ভাল করে নারান।
৯. মিশ্রনটিকে ঘন করুন।
১০. এবার একটা প্লেট নিয়ে তাতে ভাল করে ঘি মাখান।
১১. মিশ্রনটি এবার প্লেটে ঢালুন। ১০ মিনিট সময় দিন যাতে মিশ্রনটি ঠান্ডা হয়ে যায়।
১২. যখন দেখবেন মিশ্রনটি জমে গেছে তখন একটা ছুরি নিয়ে কটকটির বড় পিসটাকে যতগুলি টুকরো করার ইচ্চা করে ফেলুন। এবার কটকটি খানা পরিবেশন করুন। বাচ্চাদের কেমন লাগলো খেতে? আমাদের তা জানাতে ভুলবেন না কিন্তু!

সর্বোচ্চ পঠিত

To Top
[X]