জানা- অজানা

জেনে নিন সাধারন এলাচির অসাধারন কিছু স্বাস্থ্য উপকারিতা

হাজার বছর ধরে অ্যালোভেরা তার নিরাময় ক্ষমতার জন্য বিশ্বব্যাপী পরিচিত। এর ৯৯% পানি আর বাকি অংশ বিশুদ্ধ গুণে ভরপুর। আমরা অনেকেই শুনেছি রোদে পোড়া ত্বক সারাতে অ্যালোভেরার জুড়ি নেই, কিন্তু এর বাইরেও আরো এমন অনেক উপকার আমাদের করে যার কারণে একে আশ্চর্য-গাছও বলা হয়। বিজ্ঞানীরা বিশ্বাস করেন যে মিশরের ইতিহাস বিখ্যাত সুন্দরী ক্লিওপেট্রার সৌন্দর্য রহস্যের অন্যতম উপাদান হলো অ্যালোভেরা।

আমরা এই গাছটির গুণাগুণ বিশ্লেষণ করে অবাক করা ৮টি ব্যবহার সম্পর্কে জেনেছি। তাই আপনাদের এই তথ্য জানাতে দেরি করতে পারছি না।

১. কাট-ছেঁড়া এবং আঘাতে চিকিৎসায়

শত শত বছর ধরে অ্যালোভেরা বিভিন্ন আঘাত এবং কাট-ছেঁড়া সারিয়ে তুলতে ব্যবহার হয়ে আসছে। এটি ত্বকের কোষ কলাকে উজ্জীবিত করে নতুন ত্বক তৈরি করতে ভূমিকা পালন করে। জেনে নিন কিভাবে ব্যবহার করবেন।

– লম্বালম্বি ভাবে অ্যালোভেরার পাতা কেটে নিন।

– কাটা ক্ষততে লাগিয়ে দিন।

২. পোড়া ক্ষত নিরাময়ে

বহু আগে থেকেই ছোট খাটো পোড়া ক্ষত নিরাময়ে অ্যালোভেরা ব্যবহার হচ্ছে। ম্যান্থলের মত অ্যালোভেরারও ঠাণ্ডা অনুভূতি তৈরির ক্ষমতা রয়েছে যা পুড়ে যাওয়ার কারণে সৃষ্ট প্রদাহ এবং সেখানকার কোষ কলা ও ত্বক নতুন করে তৈরিতে ভূমিকা নেয়। যেভাবে ব্যবহার করবেন:

– পাতা থেকে এর কাটা সরিয়ে নিন।

– এরপর পাতা লম্বালম্বি করে কেটে নিন।

– পাতা থেকে এবার অ্যালোভেরার জেল চাকু দিয়ে কেটে বের করে নিন।

– এরপর এই জেল পোড়া জায়গায় লাগিয়ে দিন।

৩. পোকামাকড়ের কামড় নিরাময়ে

পোকামাকড় কামড়ালে চুলকায় কারণ পোকার লালায় বিভিন্ন বিষাক্ত রাসায়নিক এবং অ্যালার্জি তৈরি করে এমন উপাদান বিদ্যমান থাকে। ফলে আক্রান্ত স্থানে চুলকানির পাশাপাশি বিভিন্ন মাত্রার প্রদাহ তৈরি হয় এবং জায়গাটি ফুলে যায়। এই অবস্থা থেকে মুক্তি পেতে অ্যালোভেরা হচ্ছে চমৎকার সমাধান। এর শীতল অনুভূতি ব্যথা, চুলকানি এবং প্রদাহ থেকে আপনাকে মুক্তি দেবে। যেভাবে লাগাবেন:

– লম্বালম্বি করে অ্যালোভেরার পাতা কেটে নিন।

– পাতা থেকে জেল বের করে নিয়ে আক্রান্ত স্থানে সরাসরি লাগিয়ে ধরে রাখুন।

৪. মরা চামড়া দূর করতে

অ্যালোভেরা ত্বকের মৃত কোষ দূর করে ত্বককে নতুনত্বের অনুভূতি দেয়। আক্রান্ত স্থানের পাশের কোমল ত্বককে কোনো রকম আহত না করেই অ্যালোভেরা মসৃণ ভাবে ত্বকের মৃত কোষ তুলে আনে। বাজারে এখন অনেক রকম অ্যালোভেরা সমৃদ্ধ স্ক্র্যাব কিনতে পাওয়া যায়। কিন্তু হাতের কাছে অ্যালোভেরা থাকলে আপনি নিজেও এটা বানিয়ে নিতে পারেন।

প্রস্তুত প্রণালী:

– ২ টেবিল চামচ অ্যালোভেরা জেল।

– ২ টেবিল চামচ অর্গানিক বাদামি চিনি।

– ১ চা চামচ লেবুর রস।

উপাদানগুলো এক সাথে মিশিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত ত্বকে লাগান। কিছুক্ষণ পর ত্বকে স্ক্র্যাবটি ভালো ভাবে ঘষে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

৫. গোটা প্রতিরোধ এবং ব্রণ নিরাময়ে

অ্যালোভেরা ত্বকের ক্ষতিগ্রস্ত কোষ পুনর্গঠন এবং অ্যান্টি ফাঙাল ও অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদানের মাধ্যমে বিভিন্ন গোটা ও ব্রণ নিরাময় করে থাকে। এছাড়া ত্বকের কোনো গর্ত বা দাগ এবং কাটা চিহ্ন দূর করতেও এর জুড়ি নেই। যেভাবে ব্যবহার করবেন:

– লম্বালম্বি করে অ্যালোভেরার পাতা কেটে নিন।

– পাতা থেকে জেল বের করে নিয়ে আক্রান্ত স্থানে সরাসরি লাগিয়ে ধরে রাখুন।

৬. ত্বকে আর্দ্রতা ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য

অ্যালোভেরা খুব চমৎকার একটি প্রাকৃতিক ময়েশ্চারাইজার, যা শুষ্ক অথবা সেনসিটিভ স্কিনে ব্যবহার করলে খুব দ্রুত ত্বক তা শুষে নেয় এবং তাৎক্ষণিক ত্বকে আর্দ্রতা ফিরিয়ে আসে। যেভাবে ব্যবহার করবেন:

– পাতা থেকে এর কাটা সরিয়ে নিন।

– এরপর পাতা লম্বালম্বি করে কেটে নিন।

– ২ টেবিল চামচ অ্যালোভেরা জেল ২-৩ টেবিল চামচ নারিকেল তেলের সাথে মিশিয়ে নিন।

৭. শরীরের ময়লা দূর করে

অ্যালোভেরার শক্তিশালী অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টি ইনফ্লামেটরি গুণাবলি একে খুব কার্যকরী এবং মোলায়েম ভাবে শরীরের ময়লা দুর করে। অ্যালোভেরা এবং ভিটামিন ই চমৎকার ভাবে ত্বকের ক্ষত সারিয়ে তোলে এবং এসেনশিয়াল অয়েল ত্বক নরম ও কোমল করে তোলে। আসুন দেখি কিভাবে এই স্ক্র্যাবটি বানাবেন:

– পাতা থেকে এর কাটা সরিয়ে নিন।

– এরপর পাতা লম্বালম্বি করে কেটে নিন।

– একটি কাপের ১/৪ ভাগ অ্যালোভেরা পাতার থেকে জেল বের করে নিয়ে রাখুন।

– ওই কাপের ৩/৪ ভাগ তরল সাবান দিয়ে ভরে ফেলুন।

– এক চা চামচ ভিটামিন ই যোগ করুন।

– কয়েক ফোঁটা এসেনশিয়াল অয়েল যেমন- ল্যাভেন্ডার, লেমনগ্রাস বা ক্যামোমিল ওয়েল যোগ করুন।

৮. চুলের চিকিৎসায়

চুল পড়া বন্ধ করতে অ্যালোভেরা অদ্বিতীয় সমাধান। এতে রয়েছে চুলের গোড়া শক্ত করার ক্ষমতা এবং মাথার ত্বকের প্রায় মৃত কোষ সজীব করে তোলার মাধ্যমে নতুন চুল গজানোর ব্যবস্থা করে।

– লম্বালম্বি করে অ্যালোভেরার পাতা কেটে নিন।

– পাতা থেকে জেল বের করে নিয়ে আক্রান্ত স্থানে সরাসরি লাগিয়ে ধরে রাখুন।

– ২ টেবিল চামচ অ্যালোভেরা জেল ২-৩ টেবিল চামচ নারিকেল তেলের সাথে মিশিয়ে নিন।

– ১ বা ২ টেবিল চামচ মধু যোগ করুন।

এরপর মাথার ত্বক লাগিয়ে ৪০ মিনিট রেখে স্বাভাবিক পানিতে ধুয়ে ফেলুন।

কোন টিপসটি আপনার কাছে সবচেয়ে কার্যকরী মনে হয়েছে? নিচের কমেন্ট বক্সে আমাদের লিখে জানান।

Loading...

সর্বোচ্চ পঠিত

Loading...
Loading...
To Top