বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

ফেসবুক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যে বিষয় নিয়ে আলোচনায় বসবে সরকার

তিন সপ্তাহ পর খুলল ফেসবুক

ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেছেন, ‘‘আপত্তিকর কনটেন্ট নজরে আনার পর যাতে দ্রুততার সঙ্গে সাড়া দেয় সে বিষয়ে ফেইসবুক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা হবে। ফেইসবুক কর্তৃপক্ষের এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের পলিসি অ্যাডভাইজার আগামী ৬ বা ৭ ডিসেম্বর ঢাকা আসছেন।’’

বুধবার সোনারগাঁও হোটেলে ‘আন্তর্জাতিক কন্যা শিশু দিবস-২০১৫ সম্মাননা প্রদান’ অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

ফেইসবুক কর্তৃপক্ষের দ্রুত সাড়ার প্রয়োজনীয়তা বোঝাতে তারানা হালিম বলেন, “গ্রামের একটা মেয়ে আত্মহত্যা করবে- একটা অভিযোগ করলাম। সেই কনটেন্টটা অপসারণ করতে তারা চারদিন সময় ‍নিলেন। এর মধ্যে তো গ্রামের সেই মেয়েকে বাঁচানো সম্ভব হবে না। এসব বিষয়ে তারা আমাদের কীভাবে সহযোগিতা করতে পারেন, কত দ্রুততার সাথে আমাদের অভিযোগগুলো আমলে নিতে পারেন সেই বিষয়টি বিশেষভাবে গুরুত্ব দেওয়া হবে।”

ফেইসবুক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে একটি চুক্তিতে যাওয়ার প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরে প্রতিমন্ত্রী বলেন, “আমাদের ৭৩ শতাংশ নারী এখন সাইবার সহিংসতার শিকার। যখনই ফেইসবুককে অভিযোগ করি তখন ফেইসবুক গুরুত্ব দেয় না, কারণ আমাদের সাথে কোনো চুক্তি নেই। আমাদের নারীরা যে সহিংসতার শিকার হচ্ছেন এটা তাদের গণনায় নিতে হবে।’’

ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ গত সোমবার আলোচনায় আগ্রহ প্রকাশ করে চিঠি দেওয়ার পর মঙ্গলবার এ বিষয়ে সাড়া দেয় ফেইসবুক কর্তৃপক্ষ।

আলোচনায় আর কোন কোন বিষয় গুরুত্ব পাচ্ছে-এ প্রশ্নের জবাবে তারানা হালিম বলেন, “আর্থসামাজিক অবস্থায় কোনটা মানহানিকর নয়, কোনটা মানহানিকর বা সহিংসতা নয় তা আলোচনা করা দরকার।

“ফেইসবুক ব্যবহার করে নারীর প্রতি সহিংসতা হচ্ছে। এ বিষয়ে অভিযোগ করছি ফল পাচ্ছি না। নানাভাবে ধর্মীয় সম্প্রদায় ও ধর্মানুভূতিতে আঘাত আনা হচ্ছে-এসব বিষয়ে আলোচনা করা হবে।”

আলোচনায় ফেইসবুক সংক্রান্ত প্রতিটি সমস্যা ও ঘটনা পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশেনের মাধ্যমে উপস্থাপন করা হবে জানিয়ে তারানা হালিম বলেন, “কতগুলো অভিযোগ অথচ কোনো সাড়া পাইনি, যদিও আমরা তিন কোটি ফেইসবুক ব্যবহারকারী রয়েছি।”

বন্ধ করার পরও বিকল্পপথে ফেইসবুক ব্যবহার নিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, “বিকল্প পথ কেন অবলম্বন করব? সাময়িক অসুবিধার কথা বলছেন, এর চেয়ে যদি বলে একটা হাত কেটে ফেলে যাও ১০টা মানুষ বেঁচে যাবে সেটাও করতে রাজি আছি। আমরা একটা ফেইসবুক বিসর্জন দিতে পারব না কিছুটা সময়ের জন্য!”

নির্দেশনা এলেই ফেইসবুক খুলে দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে নেতৃত্বশীল ভূমিকার জন্য চারজন সরকারি কর্মকর্তাকে সম্মাননা দিয়েছে কানাডিয়ান হাই কমিশন।

আন্তর্জাতিক কন্যাশিশু দিবস-২০১৫ উপলক্ষে এ সম্মাননা পান তারা।

যাদেরকে সম্মাননা দেওয়া হয়েছে তারা হলেন- বরিশালের বিভাগীয় কমিশনার মো. গাউস, খুলনার জেলা প্রশাসক মো. মোস্তফা কামাল, জামালপুর জেলা প্রশাসক মো. শাহাবুদ্দিন খান ও খুলনার কালীগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ ফারুক আহমেদ।

সর্বোচ্চ পঠিত

To Top
[X]