এক্সক্লুসিভ

দু’বার মারার পরও জীবিত: অবশেষে সেই সাপটিকে গুলি করে মারল পুলিশ

দু’বার মারার পরও জীবিত: অবশেষে সেই সাপটিকে গুলি করে মারল পুলিশ

আজব এক সমস্যার মুখোমুখি হয়েছিল চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার শাহাবাজপুর ইউনিয়নের আজমতপুর গ্রামের মানুষ। একটি সাপকে দুবার মেরে গর্তে পুঁতে রাখার পরও সেটিকে জীবিত দেখতে পায় বলে দাবি গ্রামবাসীর।

এ নিয়ে প্রথম দুবার যারা সাপটিকে মেরেছিল তারা বিপাকে পড়ে। তাদের আশংকা, সাপটি তাদের ক্ষতি করতে পারে। এ চাঞ্চল্যের মধ্যে শেষ পর্যন্ত পুলিশ গুলি করে সাপটিকে মেরে ফেলেছে।

এর আগে বারবার মেরে ফেলার পরেও ‘বেঁচে উঠায়’ সাপটিকে নিয়ে মানুষের মধ্যে আতংক দেখা দেয়। তারা এটিকে ‘জ্বিন সাপ’ বলে প্রচার করতে থাকে।

মঙ্গলবার সকালে আজমতপুর গ্রামের বাসিন্দা খাইরুল ইসলাম জানান, গত শুক্রবার রাতে তার বাড়ির পেছনে একটি নতুন (অব্যবহৃত) টয়লেটে হাত তিনেক লম্বা একটি বিষধর সাপ দেখতে পায় স্থানীয়রা।

পরে তারা সাপটিকে মেরে একটি গর্তে পুঁতে রাখে। কিন্তু গত রোববার রাতে একই সমান লম্বা একই ধরনের আরেকটি সাপ ফের ওই টয়লেটে দেখা যায়। বিষয়টি দেখে এলাকাবাসী আগের দিনের পুঁতে রাখা সাপটি গর্ত খুঁড়ে দেখতে গেলে সেখানে কিছু পাওয়া যায়নি।

পরে দ্বিতীয় সাপটিকে মেরে তারা ওই গর্তে পুঁতে রাখে। এরপর সোমবার রাতে আবারও একই ঘটনা ঘটে। একই ধরনের সাপকে চলাচল করতে দেখেন তারা।

তবে এবার গ্রামবাসী ভয় পেয়ে সাপটিকে আর মারেনি। তবে তার গতিবিধির ওপর নজর রাখে। তাদের আশংকা ছিল, সাপটি তাদের ক্ষতি করতে পারে।

গ্রামের তোহিদুল ইসলাম আপেল জানান, গত চার দিন ধরে একটি সাপ নিয়ে একই ঘটনা ঘটতে থাকে। সবাই এটিকে ‘জ্বিন সাপ’ মনে করতে শুরু করে। এজন্য শেষবার দেখার পরও আর সাপটিকে কেউ মারতে সাহস করেননি।

এর পর মঙ্গলবার মাগরিবের আগে শিবগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে সাপটিকে গুলি করে মেরে ফেলে। আজমতপুর গ্রামের খাইরুল ইসলাম বলেন, পুলিশ গুলি করে সাপটিকে মেরে ফেলেছে।

সর্বোচ্চ পঠিত

To Top
কুপা ভাজ করি ফেলা দেও :p

কুপা ভাজ করি ফেলা দেও :p

Posted by Radio Padma News on Tuesday, 4 September 2018
[X]